Translator

Spread the page link
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পঞ্চম অধ্যায়

প্রোগ্রামিং ভাষা


** অনুবাদক প্রোগ্রাম:
যে প্রোগ্রামের মাধ্যমে অন্য ভাষায় লিখিত প্রোগ্রামকে যন্ত্র ভাষায় পরিনত করা হয় তাকে অনুবাদক প্রোগ্রাম বলে।
যন্ত্র ভাষা ছাড়া অন্য ভাষায় লিখিত প্রোগ্রামকে উৎস প্রোগ্রাম বলে। আর যন্ত্র ভাষায় লিখিত প্রোগ্রামকে বস্তু প্রোগ্রাম বলে।
উৎস প্রোগ্রামকে বস্তু প্রোগ্রামে পরিনত করতে যে সফট্ওয়্যার এর প্রয়োজন তাকে অনুবাদক প্রোগ্রাম বলে।
** অনুবাদক প্রোগ্রাম ৩ প্রকার। যথা:
1.Assembler .
2.Compiler.
3.Interpreter
.
Assembler : Assembley ভাষায় লেখা প্রোগ্রামকে যন্ত্র ভাষায় রূপান্তরের জন্য এটি ব্যবহার করা হয়। বিভিন্ন Computer এর Assembler বিভিন্ন প্রকার। Computer Company কম্পিউটার বিক্রি করার সময় এই প্রোগ্রামটি ক্রেতাকে দিয়ে থাকে। Assembler টি সাধারনত ROM স্মৃতিতে রাখা হয়। যার ফলে প্রোগ্রামটি মুছে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। এছাড়া এটি Disk এ ও সঞ্চিত রাখা যায়। যা পরবর্তীতে কম্পিউটারে ব্যবহার করা যায়।
Assembler এর বৈশিষ্ট্য:
১। এটি ধীর গতি সম্পন্ন হয় অনুবাদক প্রোগ্রাম ।
২। প্রোগ্রাম নির্বাহের জন্য বেশি সময়ের প্রয়োজন হয়।
৩। ভিন্ন ভিন্ন Assembler ভিন্ন ভিন্ন ভাষাকে অনুবাদ করতে পারে।
৪। Assembler প্রোগ্রামটি আকারে ছোট হয়।
৫। Assembler সম্পূর্ন প্রোগ্রামকে একসাথে পড়তে পারে না।
৬। Assembler সব ভুল একসাথে দেখায় না।
৭। একসাথে সকল নির্দেশকে যন্ত্র ভাষায় রূপান্তর করতে পারে না।
Assembler এর কাজ:
১। প্রত্যেকটি নির্দেশ ভুল কি শুদ্ধ তা পরীক্ষা করে ফলাফল প্রকাশ করা।
২। সংকেতিক চিহ্নকে যন্ত্র ভাষায় রূপান্তর করা।
৩। প্রত্যেকটি নির্দেশ প্রধান স্মৃতিতে সংরক্ষণ করা।
৪। ভুল থাকলে তা সংশোধন করা।


Compiler:Compiler হলো এক ধরনের অনুবাদক প্রোগ্রাম। যা High level ভাষায়
লিখিত প্রোগ্রামকে যন্ত্রভাষায় রূপান্তর করে। Compiler দুই ধাপে অনুবাদকের কাজ সম্পাদন করে।
ধাপ-১ : প্রতিটি লাইন পড়ে। উৎস প্রোগ্রামে যদি কোনো ভুল থাকে তা সংশোধন করার জন্য ব্যবহারকারীকে Error message দেয়।
ধাপ-২ : Object প্রোগ্রামকে নির্বাহ করানো হয়। ফলাফল প্রদর্শনের জন্য প্রোগ্রাম একবার ঈড়সঢ়রষব হয়ে গেলে পরবর্তীতে আর ঈড়সঢ়রষব করার প্রয়োজন হয় না।
Compiler এর বৈশিষ্ট্য:
১। এটি দ্রুত গতিসম্পন্ন অনুবাদক প্রোগ্রাম।
২। এটি একসাথে সকল নির্দেশকে যন্ত্রভাষায় রূপান্তর করে।
৩। এটি সম্মিলিত অনুবাদক প্রোগ্রাম।
৪। প্রোগ্রাম নির্বাহের জন্য সময় কম প্রয়োজন।
৫। Compiler সব ভুল একসাথে দেখায়।
৬। একটি Compiler কেবলমাত্র একটি ভাষাকে অনুবাদ করতে পারে।
Compiler এর অসুবিধা:
১। Compiler সম্পূর্ন প্রোগ্রামের সবগুলো ভুল একসাথে প্রদর্শন করে, ফলে ভুল সংশোধনে বেশি সময় লাগে।
২। প্রোগ্রাম Debugging এবং Testing ধীর গতি সম্পন্ন।
৩। Memory বেশি প্রয়োজন হয়।


Assembler ও Compiler অনুবাদ প্রোগ্রামের মধ্যে তুলনা
১। Assembler ধীরগতিসম্পন্ন অনুবাদক প্রোগ্রাম । আর Compiler দ্রুতগতি সম্পন্ন অনুবাদক
প্রোগ্রাম।
২। Assembler এ প্রোগ্রাম নির্বাহে সময় বেশি প্রয়োজন হয় । Compiler এ প্রোগ্রাম নির্বাহে
সময় কম লাগে।
৩। assembler একটি একটি করে ভুল প্রদর্শন কওে ।অপরদিকে Compiler সবগুলো ভুল
একসাথে প্রদর্শন করে।
৪। Assembler একসাথে সকল নির্দেশকে যন্ত্রভাষায় রূপান্তর করতে পারে না। অপরদিকে
Compiler একসাথে সকল নির্দেশকে যন্ত্রভাষায় রূপান্তর করতে পারে।
Interpreter: Interpreter এক ধরনের অনুবাদক প্রোগ্রাম যা High level ভাষায় লিখিত প্রোগ্রামকে মেশিন ভাষায় রূপান্তর করে। Interpreter প্রথমে প্রোগ্রামের একটি লাইন পড়ে নেয়। যদি ব্যাকরণগত ভুল না থাকে তবে ঐ নির্দেশটি যন্ত্রভাষায় পরিনত হয় এবং পরে তা কার্যে পরিনত করে। তারপর পরবর্তী নির্দেশ পড়া শুরু করে।
Interpreter এর সুবিধা :
১। এটি ব্যবহার করে প্রোগ্রামের ভুল সংশোধন করা সহজ।
২। এই প্রোগ্রাম আকারে ছোট হয় এবং মেমোরিতে কম জায়গা দখল করে।
৩। এটি সাধারনত ছোট প্রোগ্রামের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়।
Interpreter এর অসুবিধা
১। এটি একটি একটি করে নির্দেশ যন্ত্রভাষায় রূপান্তর করে ফলে ব্যাপক সময় লাগে।
২। এটি ধীর গতিসম্পন্ন অনুবাদক প্রোগ্রাম।
৩। এটি সম্পূর্ণ প্রোগ্রামকে এক সাথে অনুবাদ করতে পারে না।


Compiler ও Interpreter এর মধ্যে তুলনা:
১। Compiler দ্রুত গতি সম্পন্ন অনুবাদক প্রোগ্রাম। আর Interpreter ধীর গতি সম্পন্ন
অনুবাদক প্রোগ্রাম।
২। Compiler এ প্রোগ্রাম নির্বাহে সময় কম লাগে। Interpreter এ প্রোগ্রাম নির্বাহে সময়
বেশি লাগে।
৩। কম্পাইলার প্রোগ্রামের সবগুলো ভুল এক সাথে প্রদর্শন করে। ইন্টারপ্রিটার এ সবগুলো ভুল একসাথে
প্রদর্শন করে না।
৪। Compiler ব্যবহার করে প্রোগ্রামের ভুল সংশোধন করা কঠিন । আর Interpreter ব্যবহার করে ভুল সংশোধন করা সহজ।
৫। Compiler এ memory বেশি প্রয়োজন। Interpreter এ memory কম প্রয়োজন।
৬। Compiler একসাথে সকল নির্দেশকে যন্ত্রভাষায় পরিনত করতে পারে। Interpreter
সম্পূর্ণ প্রোগ্রামকে একসাথে অনুবাদ করতে পারে না।
৭। Compiler ব্যবহার করলে প্রোগ্রাম একবার Compile হয়ে গেলে আর কম্পাইল করতে
হয় না। Interpreter ব্যবহার করলে প্রোগ্রামের প্রতিটি নির্দেশের পূর্বে অনুবাদ করতে হয়।





Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 5 =